ফুলজোড় নদীর অন্যতম ছোট মাছের বাজার তেঁতুলিয়া
২২ নভেম্বর, ২০১৯ ০১:২৭ পূর্বাহ্ন


  

  • কামারখন্দ/ অপরাধ:

    ফুলজোড় নদীর অন্যতম ছোট মাছের বাজার তেঁতুলিয়া
    ২০ অক্টোবর, ২০১৯ ১২:২৩ পূর্বাহ্ন প্রকাশিত

    খাইরুল ইসলামঃ ভোর সাড়ে ৬টা। ফুলজোড় নদী সংলগ্ন তেঁতুলিয়া মাছের বাজার। ভোরের আলো ফুটতেই নানা বয়সী মানুষ ছোট-বড় ঝুড়িতে মাছ নিয়ে হাজির। নদী ও খাল-বিল থেকে ধরে আনা দেশি মাছের সমাহার ছোট্ট এই বাজারটিতে। আর মাত্র এক-দেড় ঘণ্টার মধ্যেই শেষ হয়ে যাবে বেচাকেনা। বিভিন্ন এলাকা থেকে দেশি মাছ কিনতে একেবারে ভোরবেলাতেই হাজির হন মাছের ক্রেতারা । আর অপেক্ষাকৃত কম দামে নদীর তাজা মাছ নিয়ে খুশি মনে বাড়ি ফিরছেন ক্রেতারা। শনিবার (১৯ অক্টোবর) ভোরে সরেজমিনে দেখা যায়, সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলার তেঁতুলিয়া গ্রাম, গ্রামের পাশ দিয়ে বয়ে গেছে ফুলজোড় নদী আর নদীর পাশেই বাজার। বাজারটি দুই ভাগে বিভক্ত। একপাশে দুই সারিতে নদী-খাল-বিল থেকে ধরে আনা মাছ আর আরেক পাশে রয়েছে সবজির বাজার । মূলত রাত-ভোররাতে নদী থেকে স্থানীয় জেলেরা মাছ ধরেন। ভোরে সেই মাছ বাজারে এনে বিক্রি করেন এলাকার বেশির ভাগ মানুষের জীবিকা নির্বাহ করে মাছ বিক্রয় করে। আর সেই মাছ কিনতে ক্রেতা আসেন দূর-দূরান্ত থেকেও। স্থানীয়দের মতে, উপজেলার মধ্যে নদীর মাছ বিক্রির সবচেয়ে অন্যতম বাজার। খুব কম দামে দেশি প্রজাতির মাছ পেতে এই বাজারের বিকল্প নেই। দেখা যায়, নদী ও বিভিন্ন জলাশয় থেকে ধরে আনা বাঘাইর, ট্যাংরা, বেলে, চিতল, বোয়াল, কালি বাউশ, শিং, কৈ, শোল, টাকি পুঁটিসহ নানা ধরনের মাছ। ক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, প্রতিদিন ভোর সাড়ে ৬টা থেকে বড়জোর সকাল ৮টা পর্যন্ত এখানে মাছ পাওয়া যায়। তবে, ৭টা থেকে সাড়ে ৭টার মধ্যেই বেশিরভাগ মাছ কেনাবেচা হয়ে যায়। এক মাছ বিক্রেতার সাথে কথা বলে জানা যায়, তার বাড়ি ফুলজোড় নদীর পাড়েই । নদী-নালায় দোয়াইর বা জাল দিয়ে পেতে মাছ ধরে থাকেন। প্রতিদিন ভোরেই এই বাজারে বেলে, ট্যাংরা, চিতল, ট্যাকি, গোছয়, পুঁটি, বেলে মাছসহ বিভিন্ন ধরনের মাছ নিয়ে আসেন। মাছ ধরার পাশাপাশি কৃষক কাজ করেন তবে মাছ বিক্রয় করে বাড়তি উপার্জন করেন তারা। তারা আরো জানান তাদের মাছ কিনতে অনেক দূর-দূরান্ত থেকে আসেন। কামারখন্দ উপজেলা থেকে মাছ কিনতে আসা মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাক ও মানিক নামে তারা দুজন বলেন, আমরা সময় পেলে প্রায়ই এখানে মাছ কিনতে আসি। অন্য বাজারের তুলনায় এখানে মাছের দাম বেশ কম। তাছাড়া, নদীর মাছ ওঠে প্রচুর ও খেতেও সুস্বাদু। তারা আরো জানান আজকেও প্রায় ১০০০-১২০০টাকার আট থেকে দশ রকমের মাছ কিনেছি যে মাছ অন্য বাজার থেকে কিনতে প্রায় দুই হাজার টালা লাগবে এছাড়া পাশে ভালো সবজির দোকানো আছে সেটাও অনেক সস্তা। তাই তো দীর্ঘদিন ধরেই ভোরে ঘণ্টাখানেকের জন্য বাজারটিতে এ ধরনের নানা প্রজাতির মাছ বিক্রি হয়। যার বেশিরভাগই ফুলজোড় নদী থেকে পাওয়া। আর সাধারণ ক্রেতারাও নদীর তাজা মাছের জন্য ছুটে আসেন এই বাজারে।
    মোঃ খায়রুল ইসলাম ২০ অক্টোবর, ২০১৯ ১২:২৩ পূর্বাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 229 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    কামারখন্দ অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট
    বিশ্বকাপ ক্রিকেট
    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    12101676
    ২২ নভেম্বর, ২০১৯ ০১:২৭ পূর্বাহ্ন