পুরো সিনেমার এখনও বাকি, এটা তো ছিল ট্রেলার : মোদি
১৮ অক্টোবর, ২০১৯ ০৭:১২ অপরাহ্ন


  

  • আন্তর্জাতিক/ অন্যান্য:

    পুরো সিনেমার এখনও বাকি, এটা তো ছিল ট্রেলার : মোদি
    ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১১:২১ পূর্বাহ্ন প্রকাশিত

    জনসভায় দাঁড়িয়ে বলি অভিনেতা শাহরুখ খানের জনপ্রিয় সিনেমার সংলাপের অনুকরণ করলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।  তিনি বলেন, এতো কেবল ট্রেলার দেখলেন, সিনামার এখনও অনেক বাকি রয়েছে। দ্বিতীয় মেয়াদে সরকার গঠনের ১০০ দিন পূর্তি উপলক্ষ্যে এভাবেই বলি ব্লক বাস্টার থেকে সংলাপ ধার নিলেন মোদি।

    বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) দেশটির ঝাড়খণ্ডের রাঁচিতে নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে নরেন্দ্র মোদি জনগণের উদ্দেশে বলেন, নির্বাচনের আগে আমি একটি শক্তিশালী ও কর্মমূখী সরকারের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম। যে সরকার আরও গতিশীল হবে এবং দ্রুত জনগণের প্রত্যাশার বাস্তবায়ন করবে। জনগণের স্বপ্ন পূরণে লড়াই করবে। আমাদের সরকারের প্রথম ১০০ দিনে যা দেখলেন তা তো শুধু ট্রেলার ছিল৷ পুরো ছবি আসতে এখনও বাকি আছে৷

    এর পর মোদি দাবি করেন, দেশের লুটেরাদের, উন্নয়ন স্তব্ধকারীদের উচিত শাস্তি বিধানই আমাদের সংকল্প৷ এই সরকারের আগে কখনও দেশে উন্নয়ন এত দ্রুত গতিতে হয়নি৷

    মোদি এই ১০০ দিন দেশ কেমন চালালেন প্রশ্নে বিশ্লেষকরা অবশ্যই এই কয়দিনে মোদি সরকারের নেয়া বড় ধরনের পদক্ষেপের কথা বলবেন। যেমন বিতর্কিত তাৎক্ষণিক তিন তালাক বিল, তথ্য জানার অধিকার আইনের বিল, ৩৭০ ধারা বিলোপ ও ভারতনিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা তুলে নেয়া ইত্যাদি।

    আর পার্লামেন্টের বিপুল জনমতের সমর্থনে এসব বিল একের পর এক বিল দ্রুততার সঙ্গে পাশ করিয়ে নিয়েছেন তিনি৷

    তবে এতো সব পদক্ষেপের মাঝেও প্রকাশ পেয়েছে ভারতের ভঙ্গুর অথর্নীতি। দেশটির পরিসংখ্যান বলছে, মন্দায় ধুঁকছে দেশ৷ প্রবৃদ্ধির হার প্রথম তিন মাসে ৫ শতাংশ, যা গত ৬ বছরে সর্বনিম্ন৷।

    যে কারণে বিরোধী দল সরকারের এই ১০০ দিনের সাফল্যকে বড় করে দেখছে না৷

    বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এভাবে চলতে থাকলে আগামী ৫ বছরের মধ্যে পাঁচ লাখ কোটি ডলারের অর্থনীতির স্বপ্ন দেখা ধুলোয় মিশে যাবে নরেন্দ্র মোদির। কারণ এতো বড় আকারের বাজেট পেশ করতে হলে দেশের আর্থিক প্রবৃদ্ধির হার লাগাতার ৮ শতাংশের ওপর থাকতে হবে। কিন্তু বর্তমানে ভারতের অর্থনীতির সূচক নিম্মমূখী।

    দেশটির কেন্দ্রীয় সরকারের দেয়া তথ্য বলছে, ২০১৮ সালের এপ্রিল-জুন, এই তিন মাসে জিডিপি ছিল ৮ শতাংশ৷ যা চলতি আর্থিক বছর কমে হল ৫ শতাংশ৷

    এর আগের তিনমাসে অর্থাৎ ২০১৯ সালের জানুয়ারি থেকে মার্চেও জিডিপি ছিল ৫.৮ শতাংশ৷ এর আগে ২০১৩ সালের জানুয়ারি-মার্চে জিডিপি ছিল ৪.৩ শতাংশ।

    নিউজরুম ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ১১:২১ পূর্বাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 169 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    আন্তর্জাতিক অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট
    বিশ্বকাপ ক্রিকেট
    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    11689386
    ১৮ অক্টোবর, ২০১৯ ০৭:১২ অপরাহ্ন