সিরাজগঞ্জে প্রতিবন্ধী কিশোরী ধর্ষণচেষ্টার অভিযুক্ত আওয়ামীলীগ নেতার হুমকী-ধামকি
২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০৯:১৭ পূর্বাহ্ন


  

   সর্বশেষ সংবাদঃ

  • সিরাজগঞ্জ/ অন্যান্য:

    সিরাজগঞ্জে প্রতিবন্ধী কিশোরী ধর্ষণচেষ্টার অভিযুক্ত আওয়ামীলীগ নেতার হুমকী-ধামকি
    ৩০ আগস্ট, ২০১৯ ০৭:৫৭ অপরাহ্ন প্রকাশিত

    সোহাগ হাসান জয়ঃ সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলায় প্রতিবন্ধী কিশোরীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ চেষ্টার ঘটনা ফাঁস হয়ে যাওয়ায় অভিযুক্ত খোকশাবাড়ি ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সভাপতি ও অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য ইসমাইল হোসেন সেখ বাবলু ও তার লাঠিয়াল বাহিনী হুমকি-ধামকী ও ভয়ভীতি প্রদর্শন করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার দুপুরে অসহায় ওই পরিবারের পক্ষ থেকে সাংবাদিকদের কাছে এমন অভিযোগ করা হয়। ধর্ষিতার মা এ ঘটনার বিচার দাবিতে দ্বারে দ্বারে ঘুরলেও কোন সুরাহা পাচ্ছেন না। অভিযুক্ত ওই আওয়ামীলীগ নেতা ও তার লাঠিয়াল বাহিনীর অত্যাচারে অসহায় পরিবারটি এখন চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে।  


    ধর্ষণচেষ্টার শিকার প্রতিবন্ধী কিশোরীর মা মোছা. আসমা খাতুন ও স্থানীয় যুবসমাজ জানায়, প্রায় তিন মাস আগে সদর উপজেলা খোকশাবাড়ি ইউনিয়নের চরখোকশাবাড়ি গ্রামের জনৈক ব্যক্তির ১৪ বছর বয়সী প্রতিবন্ধী মেয়ে তার বাড়ির পাশের একটি দোকানে সওদা কিনতে যায়। এসময় একই এলাকার মৃত কাশু খাঁ’র ছেলে ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি ও অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য ইসমাইল হোসেন  সেখ বাবলু প্রতিবন্ধী মেয়েটিকে একা পেয়ে ফুসলিয়ে তার নিজ বাড়িতে নিয়ে শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করেন। এসময় মেয়েটি চিৎকার চেঁচামেচি শুরু করলে ওই আওয়ামীলীগ নেতা ও তার স্ত্রী বিষয়টি অন্য কাউকে জানালে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকী দেন। পরে মেয়েটি তার বাড়িতে গিয়ে তার মাকে ঘটনাটি জানায়। মা বিষয়টি শোনার পর ওই আওয়ামীলীগ নেতার বাড়িতে এগিয়ে যায়। এসময় ইসমাইল হোসেন সেখ বাবলু ও তার স্ত্রী মেয়েটিকে ভালো পাত্রের সাথে বিয়ে দেবেন এবং বিয়ের সমস্ত খরচ বহন করবেন বলে প্রলোভন দিয়ে বাড়ি পাঠিয়ে দেন। সম্প্রতি এলকাবাসীর মধ্যে বিষয়টি জানাজানি হলে স্থানীয় মাতবর রহিম মেম্বার, আব্দুল, দুলাল, আব্দুস ছালাম, লাল চাঁদ আমার উপর চাপ সৃষ্টি করছে ঘটনাটি আপোষ করার জন্য। 


    ধর্ষণচেষ্টার শিকার প্রতিবন্ধী কিশোরীর মা আসমা খাতুন আরো জানান, আমার দুটি সন্তান। তারা দু’জনই প্রতিবন্ধী। স্বামীও পাগল। অর্থনৈতিক অবস্থাও ভীষণ খারাপ। তাছাড়া, কি ভাবে মামলা করতে হয় তাও জানিনা। কেউ সহযোগিতাও করছেন না। অভিযুক্ত ব্যক্তি অত্যন্ত প্রভাবশালী। কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান পাশে না দাঁড়ালে মামলা করা বা পরিচালনা করা সম্ভব না। এব্যাপারে সকলের সগযোগিতা কামনা করেছেন তিনি।


    এ বিষয়ে স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি হেলাল শেখ বলেন, ঘটনাটি শুনেছি। ধর্ষণচেষ্টার শিকার প্রতিবন্ধী মেয়ে ও তার মা আমার কাছে এসেছিলেন। তাদের কাছ থেকে বিস্তারিত শুনেছি। আমি নিজেও এমন ন্যাক্কারজনক ঘটনার বিচার চাই। তবে এলাকার মাতবররা বিচার করে বিষয়টি মিমাংশা করে দিবেন বলে তিনি জানান।


    অভিযুক্ত ইসমাইল হোসেন সেখ বাবলু হুমকি-ধামকি ও ধর্ষনের কথা অস্বীকার করে বলেন, আমি ওই মেয়েটিকে নাতনী হিসেবে আদর সোহাগ করি এবং প্রতিবন্ধী হওয়ায় তাকে মাঝে মধ্যে দোকান থেকে এটা ওটা কিনেও দেই। কিন্তু তাকে আমি ধর্ষন করিনি। এটা নিয়ে আমার সাথে শত্রুতা করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।
    সদর থানার ওসি মোহাম্মদ দাউদ জানান, ঘটনাটি শুনেছি। তবে এবিষয়ে এখনো কেউ লিখিত অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

    স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, সিরাজগঞ্জ ৩০ আগস্ট, ২০১৯ ০৭:৫৭ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 400 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    সিরাজগঞ্জ অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট
    বিশ্বকাপ ক্রিকেট
    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    11393227
    ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০৯:১৭ পূর্বাহ্ন