সিরাজগঞ্জে এডিস মশার লাভা পাওয়া গেছে
১০ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০৬:৫৬ অপরাহ্ন


  

  • সিরাজগঞ্জ/ অন্যান্য:

    সিরাজগঞ্জে এডিস মশার লাভা পাওয়া গেছে
    ০২ আগস্ট, ২০১৯ ১০:৫৮ পূর্বাহ্ন প্রকাশিত

    সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি ঃ সিরাজগঞ্জ পৌর এলাকার বিভিন্ন স্থানে এডিস মশার লাভা পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে সিভিল সার্জন কার্যলয়। গত দুই দিনে সিভিল সার্জন কার্যলয়ের এ্যান্টোমোলজি টেকনিশিয়ানরা পৌর এলাকার বিভিন্ন স্থানে পর্যবেক্ষন করে শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপুর্ণ স্থাপনা থেকে এডিস মশার লাভা এবং এডাল্ট মশা পাওয়া গেছে। সিরাজগঞ্জের সিভিল সার্জন ডাঃ জাহিদুল ইসলাম জানান পৌর এলাকা থেকে এডিস মশার পর্যাপ্ত লাভা পাওয়া গেছে। আরো অনেক স্থানে থাকতে পারে। শুধু ঔষধ দিলে হবে না সবাইকে সচেতন হতে হবে। আমরা সিভিল সার্জন কার্যলয় থেকে লেফলেট,ব্যানার,প্রচার মিছিল এবং বিভিন্ন স্কুলে গিয়ে গিয়ে সচেতনতা মুলক কর্মসুচী পালন করছি। সবাইকে সচেতন হতে হবে। এখন পর্যন্ত জেলায় ৪৫ জন ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়েছে এর মধ্যে ১১ জন চিকিৎসা নিয়ে চলে গেছে বাকীরা সিরাজগঞ্জ সরকারি হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে। ডেঙ্গু রোগের প্যাথলজিকাল পরীক্ষার মুল্য সরকারি মুল্য ৫০০ টাকা নেওয়ার জন্য সবাইকে নির্দেশনা দিয়া হয়েছে। সিভিল সার্জন কার্যলয়ে এ্যান্টোমোলজি টেকনেশিয়ান মোঃ তোফাজ্জল হোসেন জানান গত দুই দিন আমরা সিরাজগঞ্জের সার্কিট হাউজ সহ সরকারি বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে এডিস মশার লাভা পেয়েছি এর মধ্যে সিরাজগঞ্জ পৌরসসভার ক্যাম্পাসের ভিতর স্তুপ করে রাখা গাড়ীর টায়ারের মধ্যে পর্যাপ্ত পরিমান এডিস মশার লাভা পেয়েছি। পুলিশ সুপারের বাসভবনের ফুলের টপে লাভা এবং তিনটি এডাল্ট মশা পেয়েছি। গণপুর্ত অফিসের নির্বাহী প্রকৌশলীর বাসভবনে এবং জেলা পরিষদের ডাকবাংলা সহ করেকটি বাড়িতে আমরা এই লাভা পেয়েছি। যেখানে আমরা লাভা পেয়েছি সেখানে মশা নিধন ঔষধ দিবার পরামর্শ দিয়েছি। এবং এই লাভাগুলো আমরা সংগ্রহ করে ঢাকায় প্রেরণ করার জন্য সংরক্ষণ করেছি। তবে এই এডিস মশার লাভা শহরের বিভিন্ন স্থানে রয়েছে। আমি সকল কে অনুরোধ করছি বাড়ির ফুলের টপ,পুরাতন বতল,ডাবের খোশা এই গুলো পরিস্কার করার জন্য। কারন এই এডিস মশার জন্ম হয় সাধারনত পরিস্কার পানিতে আর এসব স্থানেই পরিস্কার পানি থাকে। শুধু ঔষধ দিয়ে নয় এডিসের বিস্তার রোধে সকল কে সচেতন হতে হবে। সিভিল সার্জন কার্যলয়ের আরেকজন এ্যান্টোমোলজি টেকনেশিয়ান মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন জানান আমরা সিরাজগঞ্জে দুই দিনে যে পরীক্ষা করেছি তাতে প্রায় ৭০ শতাংশ বাড়িতেই এডিস মশার লাভা পাওয়া গেছে। লাভা থেকে মাত্র দুই দিনেই এশটি এাডাল্ট মশা জন্ম নিতে পারে। এখন যদি সচেতন না হওয়া যায় তাহলে এটি এশটি বড় সমস্যা হবে এই শহরের জন্য। আমরা পৌরসভাকে জানিয়েছি কোথায় কোথায় এডিস মশার লাভা পাওয়া গেছে। তারা সেটা অনুযায়ী তাদের পদক্ষেপ গ্রহন করবে। সিরাজগঞ্জে এডিস মশার বিস্তার রোধে পৌরসভাকে আরো কার্যকরি হওয়ার আহবান জানিয়েছে সচেতন নাগরিকরা। মশা নিধনে পৌরসভা যে কাজ করছে সেটা পর্যাপ্ত না। বাড়ির আঙ্গিনায় শখ করে লাগানো ফুলের টপের পানি থেকে জন্ম নিতে পারে এডিস মশা যার একটি কামড় কেরে নিতে পারে একটি জীবন। বর্তমানে সিরাজগঞ্জের বিভিন্ন হাসপাতালে ৩১ জন ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসা সেবা নিচ্ছে । প্রতিদিন বাড়ছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা। জেলায় এই রোগ মহামাড়ি আকার ধারন করার আগে সকলকে নিজ নিজ বাড়ির আঙ্গিনা ও ঘড় পরিস্কার রাখার অনুরোধ জানিয়েছে জেলার স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা।
    স্টাফ করেস্পন্ডেন্ট, সিরাজগঞ্জ ০২ আগস্ট, ২০১৯ ১০:৫৮ পূর্বাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 1347 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    সিরাজগঞ্জ অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট
    বিশ্বকাপ ক্রিকেট
    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    12281225
    ১০ ডিসেম্বর, ২০১৯ ০৬:৫৬ অপরাহ্ন