চৌহালীর রেহাই পুখুরিয়া-সলিমাবাদ সড়ক দীর্ঘ ২৫ বছরেও আলোর মুখ দেখেনি
২০ অক্টোবর, ২০১৯ ০৪:৪৩ পূর্বাহ্ন


  

  • চৌহালী/এনায়েতপুর/ জনদুর্ভোগ:

    চৌহালীর রেহাই পুখুরিয়া-সলিমাবাদ সড়ক দীর্ঘ ২৫ বছরেও আলোর মুখ দেখেনি
    ১৮ জুন, ২০১৯ ০৪:৩১ অপরাহ্ন প্রকাশিত

    সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলার গ্রামীন জনপদ ও গ্রাম-গঞ্জের মাটির কাঁচা রাস্তা রেহাই পুখুরিয়া- সলিমাবাদ সড়কটি দীর্ঘ ২৫ বছরেও আলোর মুখ দেখেনি। দক্ষিনঅঞ্চলের জনবহুল ভাঙ্গা ও নিচু সড়ক  দ্রুত মাটি ফেলে পুর্ণঙ্গ সড়ক দেখতে চায় শিশু শিক্ষার্থীরা। 

    চৌহালী একটি কৃষি নির্বভরশীল এলাকা, এখানে রাস্তা-ঘাট ব্যবহার উপযোগী হলে হাট-বাজারসহ বিভিন্ন স্থানে যাতায়াতে সুবিদা হবে এবং কৃষির ওপর মানুষ আরও নির্বাভরশীল হবে। ডিজিটাল যুগে মানুষ সাহায্য চায় না তারা রাস্তা ও পাকা সড়ক চায়, উপজেলার সকল কাচা রাস্তা ভাঙ্গা বরাট ও পাকা করণ করা হোক এমনটাই প্রত্যাশা গনমানুষের। চৌহালী  দক্ষিণ অঞ্চলের রেহাইপুখুরিয়া- সলিমাবাদ ব্রীজ সড়ক জনবহুল গুরুত্বপুর্ণ সড়ক,দীর্ঘ ২৫ বছরেও আলোর মুখ দেখছে না। এ রাস্তায় প্রতিনিয়ত চৌহালী উপজেলার সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারি ও দৌলতপুর, নাগরপুর উপজেলাসহ বাঘুটিয়া ভুতেরমোড় রেহাইপুকুরিয়া এলাকার মানুষ চলাচল করে। স্থানীয় হাট-বাজার, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান,কবরস্থান, ব্রীজ ও ইউনিয়ন পরিষদে যে সব গ্রমীন মাটির রাস্তা সংযুক্ত রয়েছে সে রাস্তাগুলো দীর্ঘ স্থায়ী ও টেকশই করতে দূত ভাঙ্গা রাস্তা পুর্ণঙ্গ রাস্তায় ও পাকা রাস্তা করা প্রয়োজন বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

     বর্ষা মৌসুমে মাটির রাস্তা গুলো কর্দমাক্ত হয়ে চলাচলের অনুপযোগী হয় এবং ক্ষতিগ্রস্থ হয়। ফলে প্রতিবছর ক্ষয় হয়ে যাওয়া রাস্তা মেরামতে বিপুল পরিমান অর্থ ব্যয় হয়, যা দেশের অবকাঠামো উন্নয়নে নেতিবাচক প্রভাব ফেলে। এ পরিস্থিতির রাস্তা মোরামত ও রক্ষণা বেক্ষন ব্যায় কমিয়ে আনার জন্য বিদ্যমান মাটির রাস্তার ওপর এইচ,বি বি হেরিংবন্ড করার একটি প্রকল্প গ্রহন করা জরুরী। এমন প্রকল্পের প্রস্তাবনার দাবি এলাকাবাসির। সুষ্ঠ যোগাযোগ ব্যবস্থা সামাজিক ও অর্থনৈতিক উন্নয়নের পুর্ব শর্ত। কিন্ত  গ্রামাঞ্চলে বর্তমানে চাহিদার তুলনায় পর্যপ্ত এইচ বি বি রাস্তা না থাকার কারণে সহজ যোগাযোগ সম্ভব হচ্ছে না। ফলে দুর্যোগের সময় মানুষ স্বল্পতম সময়ে আশ্রয় কেন্দ্রে পৌছতে পারে না, এমনকি কৃষি পণ্য বাজার জাতকরণ নিয়ে কৃষকরা বিপাকে। ফলে কৃষি ও সামাজিক খাতে উন্ন্য়ন কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। এক স্থান থেকে অন্য স্থানে যাতায়ারতে সময় সাশ্রয় কৃষিপণ্যের দ্রত বাজার জাতকরণ শিক্ষার্থীসহ স্থানীয় জনগোষ্ঠীর যাতায়াতের সক্ষমতা বৃদ্ধি করার জন্য দুর্যোগ ও ত্রানমন্ত্রণালয় থেকে এ প্রকল্পটি গ্রহন করা হোক। প্রকল্পের সম্ভাব্যতা যাচাই এর কাজ সম্পর্ণ এবং সম্ভাব্যতা যাচাই করে প্রকল্পটি হাতে নেওয়ার সুপারিষ করেন শিক্ষার্থীসহ ভোটাররা।

     চৌহালীতে গ্রামীন মাটির রাস্তা বাস্তাবায়ন হলে গ্রামীন হাট বাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ইউপির সাথে সুষ্ঠ যোগাযোগ ব্যবস্থা গড়ে উঠবে। এতে কৃষি উপকরণসহ পরিবহন উৎপাদিত কৃষিপণ্য বিপন্ন ছেলে মেয়েদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এর সাথে যোগাযোগ ও শিক্ষার প্রসার এবং গ্রামীন জনগোষ্ঠির জন্য কর্মসংস্থান এর সুযোগ সৃষ্টি সম্ভাব হবে। প্রথম পর্যায়ে কার্পেটিং করা পাকা রাস্তা না হলেও অন্তত ইট বিছিয়ে হেরিংবন্ড করা দরকার। গ্রাম হবে শহর এমনই উদ্যোগ সরকারের প্রতিশ্রুতির মধ্যে রয়েছে। আর এ উদ্যোগকে সামনে রেখে দেশের প্রতিটি উপজেলার ন্যায় যমুনার পুর্ব অঞ্চলের গ্রামীন জনপদের কাঁচা রাস্তাএখন পাকা সড়ক দেখতে চায় চৌহালীর মানুষ।

    নিউজরুম ১৮ জুন, ২০১৯ ০৪:৩১ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 405 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    চৌহালী/এনায়েতপুর অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট
    বিশ্বকাপ ক্রিকেট
    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    11706511
    ২০ অক্টোবর, ২০১৯ ০৪:৪৩ পূর্বাহ্ন