বিদ্যুৎ অফিসের অবহেলায় অগ্নিকান্ড
২৫ আগস্ট, ২০১৯ ১১:৫০ পূর্বাহ্ন


  

  • কামারখন্দ/ দূর্ঘটনা:

    বিদ্যুৎ অফিসের অবহেলায় অগ্নিকান্ড
    ১৯ মে, ২০১৯ ০৭:৪৭ অপরাহ্ন প্রকাশিত

    খাইরুল ইসলামঃ সিরাজগঞ্জ কামারখন্দ উপজেলায় বিদ্যুৎ অফিসের অবহেলায় অগ্নিকান্ডে প্রায় তিন লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতির অভিযোগ রয়েছে। শনিবার (১৮মে) সকাল এগারটার দিকে বিদ্যুতের ট্রান্সফরমার থেকে অগ্নিকান্ডের সুত্রপাতের খবর পাওয়া গেছে।
     
    এতে বালুকোল গ্রামের কয়েকটি বাড়ির চারটি ঘরসহ আসবাব পত্রের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। এঘটনায় আহত হয়েছেন এক কিশোরসহ ৫জন।
    জানা যায়, শুক্রবার (১৭মে) রাতে প্রাকৃতিক দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ায় সারাদেশে বেশির ভাগ উপজেলা ঝড় হয়। কামারখন্দ উপজেলাতে ঝড়ের কারণে বালুকোল গ্রামে একটি বৈদ্যতিক ট্রান্সফরমার ব্রাস্ট হয় এতে গ্রামের লোকজন বিদ্যুৎ অফিসে ফোন কলে অভিযোগ করলে বিদ্যুৎ সংযোগ সাময়িক বন্ধ করা হয়।
     
     
     
    পরের দিন সকালে ট্রান্সফরমার পরিক্ষা না করেই বালুকোল গ্রামে বিদ্যুৎ সংযোগ দিলে ট্রান্সফরমার থেকে যেগুলো বাড়িতে মিটার সংযোগ দেওয়া হয়েছে সব বাড়িতে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে।
    অগ্নিকান্ডের ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে শাহজাহান আলী সরকারের ছেলে রফিকুল ইসলাম জানান, ট্রান্সফরমার থেকে অগ্নিকান্ডর সুত্রপাত বিদ্যুৎ অফিসে রাত্রীতে কল করে লাইন বন্ধ করে দেওয়া অভিযোগ করে কোন লাভই হলো সকালে ট্রান্সফরমার পরিক্ষা না করেই লাইন দিলে সাথে সাথে আমার বাড়িতে আগুন ধরে যায় এতে আমার আসবাবপত্রসহ প্রায় পঞ্চাশ হাজার টাকার ক্ষতি হয়েছে।
    বজলার রহমানের স্ত্রী হালিমা বেগম জানান, আমি গরীব মানুষ সমিতি থেকে সুদের উপর নেওয়া পয়ত্রিশ হাজার টাকা ছিল ঘরে, আগুন লেগে ঘর পুরে ছাই হয়ে গেছে সাথে আসবাবপত্র নগদ টাকাসহ প্রায় দেড় লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে।
    শুকুর আলী সরকারের ছেলে মো. আব্দুর রাজ্জাক জানান, সকালে আগুন লেগে আমার বসত ঘর পুড়ে গেছে সাথে ঘরে থাকা সকল আসবাবপত্র। বিদ্যুৎ অফিসের অবহেলায় আগুন লেগেছে, এঘটনায় ঝাঐল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন কিন্তু কোন আশ্বাস দেননি উল্টো বিদ্যুৎ অফিসের লোক এলাকায় আসলে এলাকাবাসীর তোপের মুখে পরলে তাদের এখান থেকে উদ্ধার করে নিয়ে গেছেন।
     
     
     
    কামারখন্দ ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন ইনচার্জ (লিডার) আহসান আলী জানান, আমরা সকাল সারে এগারটার দিকে ৯৯৯ নাম্বার থেকে ফোন কল পেয়ে ঘটনাস্থলে যাই, ঘটনাস্থলে যাওয়ার আগেই এলাকাবাসী আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। এঘটনায় আহত একজনকে দ্রুত সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাই।
    কামারখন্দ পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের এজিএম সিরাজুল হক জানান, আগুন লাগার বিষয়টি শুনেছি তবে কিভাবে আগুন লেগেছে সে বিষয়ে অবগত নই ঘটনাস্থলে আমাদের লোক গেছেন।
     
     
     
     
    মোঃ খায়রুল ইসলাম ১৯ মে, ২০১৯ ০৭:৪৭ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 287 বার দেখা হয়েছে।
    পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
    কামারখন্দ অন্যান্য খবরসমুহ
    সর্বশেষ আপডেট
    বিশ্বকাপ ক্রিকেট

    নিউজ আর্কাইভ
    ফেসবুকে সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ
    বিজ্ঞাপন
    সিরাজগঞ্জ কণ্ঠঃ ফোকাস
    • সর্বাধিক পঠিত
    • সর্বশেষ প্রকাশিত
    বিজ্ঞাপন

    ভিজিটর সংখ্যা
    11096112
    ২৫ আগস্ট, ২০১৯ ১১:৫০ পূর্বাহ্ন