শাহজাদপুরে চাচা হাজী শামসুল কর্তৃক ৩ এতিমের সম্পত্তি গ্রাসের পায়তারা||চৌহালী নিউজঃ
চৌহালী নিউজঃ ওয়েবসাইটে স্বাগতম | যোগাযোগ : ০১৭৭৯-১১৭৭৪৪
১৯ নভেম্বর, ২০১৮ ০৫:০৩ অপরাহ্ন       রেজিষ্টার করুন | লগইন    

শাহজাদপুর: অপরাধ

শাহজাদপুরে চাচা হাজী শামসুল কর্তৃক ৩ এতিমের সম্পত্তি গ্রাসের পায়তারা
সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, শাহজাদপুর ১৫-১০-২০১৮ ১১:৩৮ অপরাহ্ন প্রকাশিতঃ


শাহজাদপুর: সংবাদ সম্মেলনে তানজিলা বেগমের পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করছেন ছেলে সাদিক।

স্টাফ রিপোর্টা : শাহজাদপুর মহিলা ডিগ্রি কলেজের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ (সাবেক) প্রয়াত সিরাজুল হকের ছোট ভাই হাজী শামসুল ইসলাম কর্তৃক এতিম ৩ ভাতিজা, ভাতিজী ও অসহায় ভাবীর জীবীকার একমাত্র অবলম্বন মার্কেটের সম্পত্তি প্রতাপ খাটিয়ে বে-আইনী ভাবে অাত্মস্মাতের অপচেষ্টা, অসহায় ওই পরিবারের সদস্যদের মারপিট, খুন জখমের হুমকি, হয়রানীর উদ্দেশ্যে দায়েরকৃত বেশ ক'টি মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে সংবাদ সন্মেলন করেছে অধ্যক্ষ প্রয়াত সিরাজুল ইসলামের পরিবার । ১৫ অক্টোবর সোমবার সকালে শাহজাদপুর পৌর এলাকার মণিরামপুর মহল্লাস্থ প্রয়াত অধ্যক্ষ সিরাজুল ইসলামের বাসভবনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সন্মেলনে প্রয়াত অধ্যক্ষ সিরাজুল ইসলামের স্ত্রী তাজলিন বেগমের পক্ষে লিখিত বক্তব্যে নাবালক ছেলে সাদিক অভিযোগে জানান, 'অসহায় ওই পরিবারের জীবীকার একমাত্র উৎস মণিরামপুর বাজারের নূর সুপার মার্কেটের সম্পত্তির প্রধান অংশ জোর করে দখলের অপচেষ্টা এবং বে-আইনী ভাবে আত্মসাতের অপচেষ্টা, ভিটেমাটি থেকে উচ্ছেদ করতে একের পর এক দেওয়ানী ও ফৌজদারী একাধিক মিথ্যা মামলা দায়েরসহ গভীর ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছেন হাজী শামসুল ইসলাম ।' এতিম অসহায় ওই পরিবারের সদস্যের নামে ফৌজদারী আদালতেও মিথ্যা মামলা করে তাদের হয়রানি করা হচ্ছে। মণিরামপুর বাজারের নুর সুপার মার্কেটের সম্পত্তির মালিক রেজাউল হক, সিরাজুল হক এবং শামসুল হক এ ৩ ভাইসহ ওয়ারিশগণের অংশ বাটোয়ারার মাধ্যমে মরহুম অধ্যক্ষ সিরাজুল হক জীবিত থাকতেই ৩ ভাইয়ের স্ব-স্ব অংশ বাটোয়ারার মাধ্যমে সারি কআকারে পৃথক করে যার যার অংশ সেই ভোগ দখল করে এসেছেন। কিন্তু, সিরাজুল হকের মৃত্যুর পর তার মা আলহাজ্ব মোছাঃ রোকেয়া ইসলাম ৬:১ অনুপাতে মৃত ছেলে সিরাজুল ইসলামের সম্পত্তির মালিক হলে সেই আড়াই শতক সম্পত্তি হাজী শামসুল হক কৌশলে পুরো অংশই অসাধু পন্থা অবলম্বনে মার্কেটের সন্মুখভাগ চৌহদ্দি উল্লেখ করে তার নামে রেজিষ্ট্রি করে নেন। এরপর হাজী শামসুল হক বাদী হয়ে গত ২৮ আগষ্ট বিজ্ঞ আদালতে একটি বাটোয়ারা মামলা দায়ের করেন( যার নং ১২৬৬ )। বিজ্ঞ আদালতে মামলা চলমান থাকাবস্থায় হাজী শামসুল হহক মার্কেটের এতিম সন্তানদের অগ্রাংশের ভাড়াটিয়া ব্যাবসায়ীদের তাকে মালিক মেনে নিয়ে মাসিক ভাড়া তার কাছে দেয়ার জন্য নানাভাবে চাপ সৃষ্টি করে আসছে। তার প্রস্তাবে রাজী না হলে ভাড়াটিয়া ব্যবসায়ীদের দোকান ছেড়ে দিতে হবে মর্মেও হুমকি দেয়া হচ্ছে। সংবাদ সম্মেলনে মরহুম সিরাজুল হকের ছেলে অষ্টম শ্রেণি পড়ুয়া ছাত্র সাদিক অশ্রুসিক্ত নয়নে সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমার আম্মা একজন বিধবা ভদ্র মহিলা । অথচ, আমার চাচার দায়ের করা মিথ্যা মামলায় কোর্টে হাজিরা দিতে আমাদের ভীষণ কষ্ট হচ্ছে।’ অসহায় তাজলিন বেগম বলেন, ‘আমার দেবর শামসুল ইতিমধ্যেই আমাকে ভূল বুঝিয়ে সম্পদ দেখভালের কথা বলে আমার স্বাক্ষর নিয়ে ডাচ্ বাংলা ব্যাংকের ৯৫ হাজার ভাড়ার টাকা তুলে নিয়েছে । না জানিয়েই সে আমাদের ট্যাক্সিক্যাব বিক্রি করে দিয়ে সমুদয় অর্থ পকেটস্থ করেছেন । বর্তমানে মার্কেটের যে অংশের ভাড়ার টাকায় ছেলে-মেয়েদের নিয়ে চলছি, সে অংশও প্রভাবশালী মহলের ছত্রছায়ায় শামসুল জবর দখলের চেষ্টা করছে। সে আমার ও নাবালক সন্তান সাদিকের কাছে আমাদের সম্পত্তি পরিচালনার কথা বলে ফের পাওয়ার অব এটর্ণি (আম মোক্তারনামা) চাওয়ায় তার প্রস্তাবে না হওয়ায় আমার নাবালক সন্তানদের যখন-তখন মারপিটের হুমকি দিয়ে যাচ্ছে । বাধ্য হয়ে আমাদের জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে শাহজাদপুর থানায় ৩ টি সাধারণ ডায়েরিও করেছি। কিন্তু, তাতেও শামসুল না থেমে আমাদের হুমকি ধামকি দিয়ে চলেছে ও একের পর এক নতুন ষড়যন্ত্র করে চলেছে। অমানবিক এসব নির্যাতন বন্ধে প্রশাসনের উর্ধতন কর্তৃপক্ষ, মানবাধিকার কর্মী, ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দসহ সকলের আশু সুদৃষ্টি ও হস্তক্ষেপ কামনা করছি।'

১৫-১০-২০১৮ ১১:৩৮ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 286 বার দেখা হয়েছে।

পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ

চৌহালী নিউজঃ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

নির্বাচিত খবরসমুহ
শাহজাদপুর : আরো খরবসমুহ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ প্রকাশিত
ফেসবুকে চৌহালী নিউজঃ
চৌহালী নিউজঃ ফোকাস
বিজ্ঞাপন

স্পন্সরড অ্যাড

ভিজিটর সংখ্যা
100
১৯ নভেম্বর, ২০১৮ ০৫:০৩ অপরাহ্ন