মিথ্যা অপহরনের অভিযোগ থেকে স্বামী, শ্বশুর ও শ্বশুরবাড়ির আত্বীয় স্বজনকে রক্ষায় তরুনীর সংবাদ সম্মেলন||চৌহালী নিউজঃ
চৌহালী নিউজঃ ওয়েবসাইটে স্বাগতম | যোগাযোগ : ০১৭৭৯-১১৭৭৪৪
১৬ অক্টোবর, ২০১৮ ০৫:০০ পূর্বাহ্ন       রেজিষ্টার করুন | লগইন    

সিরাজগঞ্জ: অন্যান্য

মিথ্যা অপহরনের অভিযোগ থেকে স্বামী, শ্বশুর ও শ্বশুরবাড়ির আত্বীয় স্বজনকে রক্ষায় তরুনীর সংবাদ সম্মেলন
নিউজরুম ৩০-০৯-২০১৮ ০৫:৪৯ অপরাহ্ন প্রকাশিতঃ


ফাইল ছবি

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃ অপহরনের অভিযোগ থেকে প্রেমিক স্বামী, শ্বশুর ও শ্বশুরবাড়ির আত্বীয়-স্বজনকে রক্ষায় সংবাদ সম্মেলন করেছেন পরিবারের অমতে পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করা তাছলিমা খাতুন (১৯) নামে নব বিবাহীত এক তরুনী। সংবাদ সম্মেলনে ঐ তরুনীর প্রেমিক স্বামী ও শ্বশুর উপস্থিত ছিলেন। রবিবার সকালে সিরাজগঞ্জ শহরের একটি কমিউনিটি সেন্টারের হলরুমে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে তাছলিমা খাতুন বলেন, আমি সিরাজগঞ্জের সলঙ্গা থানার ধুবিল ইউনিয়নের ঝাঐল গ্রামের রওশন আলীর মেয়ে। আত্বীয়তার সুবাদে পরিচয় হওয়া একই থানার ঘুড়কা গ্রামের খলিলুর রহমানের ছেলে মোঃ আতিকুল ইসলামের (২২) সাথে মোবাইলে প্রেমের সম্পর্কের গড়ে ওঠে। কিন্তু আতিকুলের পরিবারের আর্থিক অবস্থা খারাপ হওয়ায় আমার বাবা আমাকে আতিকের সাথে বিয়ে না দিয়ে অন্যত্ত বিয়ে দেবার চেষ্টা করলে বাড়ি থেকে পালিয়ে গিয়ে ২০১৭ সালের ৪’ই নভেম্বর কাজি অফিসে আমি ও আতিক বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হই। পরদিন ০৫’ই নভেম্বর নোটারি পাবলিকের মাধ্যমে আমাদের বিয়ের রেজিস্ট্রি করার পর আমরা সুখে-শান্তিতে সংসার করতে থাকি। 

তিনি আরো বলেন, দীর্ঘদিন পর আমার পরিবারের পক্ষ থেকে এই সম্পর্ক মেনে নেবার কথা বলে আমাকে বাড়িতে নিয়ে এসে জোরপূর্বক চলতি বছরের ৭’ই সেপ্টেম্বর আতিকুলকে ডিভোর্স দিতে বাধ্য করে আমার বাবা। বাধ্য হয়ে আমি আবারও বাড়ি থেকে পালিয়ে গিয়ে ২১ শে সেপ্টেম্বর আতিকের সাথে দ্বিতীয়বার বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়। ২৪শে সেপ্টেম্বর নোটারি পাবলিকের মাধ্যমে বিবাহ রেজিস্ট্রি সম্পন্ন করা হয়েছে। কিন্তু আমার বাবা রাগের বশবর্তী হয়ে সলঙ্গা থানায় মিথ্যা অপহরনের অভিযোগ প্রদান করে আমার স্বামী, শ্বশুর ও শ্বশুরবাড়ির আত্বীয় স্বজনকে হয়রানি করছে। এমনকি নানাভাবে ভয়-ভীতি প্রদর্শন করছে। সংবাদ সম্মেলনে তাছলিমা আরো বলেন, আমি স্বাবালিকা, বিধায় আইনগতভাবে আমার নিজ ইচ্ছায় বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হওয়ার অধিকার রয়েছে। আমি থানা পুলিশকে অনুরোধ করছি, মিথ্যা অভিযোগ আমলে না নিয়ে আমাকে সুখে-শান্তিতে সংসারধর্ম পালন করার সুযোগ দিন।

এ সময় তাছলিমা খাতুনের শ্বশুর খলিলুর রহমান বলেন, নিজ ইচ্ছায় তাছলিমা আমার বাড়িতে এসে উপস্থিত হওয়ায় ছেলের সাথে ওর বিয়ে দিয়েছি। এখন অপহরনের অভিযোগে অভিযুক্ত হয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছি। পুলিশ প্রতিদিন বাড়িতে এসে আমাদের খোজ করছে। আমি এই মিথ্যা অভিযোগ থেকে রেহাই চাই। এ বিষয়ে সলঙ্গা থানার উপ-পরিদর্শক (এস আই) মিলন বলেন, মোছাঃ তাছলিমা খাতুন নামে একটি মেয়েকে অপহরনের একটি অভিযোগ প্রদান করেছে তার বাবা রওশন আলী। মেয়েটি স্বাবালক, যদি মেয়েটি স্বেচ্ছায় বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে থাকে তাহলে সে মোতাবেক ব্যাবস্থা নেয়া হবে। এখানে কাউকে হয়রানি করার কোন সুযোগ নেই।

 


৩০-০৯-২০১৮ ০৫:৪৯ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 177 বার দেখা হয়েছে।

পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ

চৌহালী নিউজঃ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

নির্বাচিত খবরসমুহ
সিরাজগঞ্জ : আরো খরবসমুহ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ প্রকাশিত
ফেসবুকে চৌহালী নিউজঃ
চৌহালী নিউজঃ ফোকাস
বিজ্ঞাপন

স্পন্সরড অ্যাড

ভিজিটর সংখ্যা
100
১৬ অক্টোবর, ২০১৮ ০৫:০০ পূর্বাহ্ন