উল্লাপাড়ায় করতোয়া-ফুলজোঁড় নদীর তীরে কাশফুল আকৃষ্ট করছে প্রকৃতি প্রেমীদের||চৌহালী নিউজঃ
চৌহালী নিউজঃ ওয়েবসাইটে স্বাগতম | যোগাযোগ : ০১৭৭৯-১১৭৭৪৪
১৮ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১২:৪২ পূর্বাহ্ন       রেজিষ্টার করুন | লগইন    

উল্লাপাড়া: অন্যান্য

উল্লাপাড়ায় করতোয়া-ফুলজোঁড় নদীর তীরে কাশফুল আকৃষ্ট করছে প্রকৃতি প্রেমীদের
নিউজরুম ২৪-০৯-২০১৮ ০২:৫৪ অপরাহ্ন প্রকাশিতঃ


ফাইল ছবি

রায়হান আলীঃ উল্লাপাড়ায় করতোয়া-ফুলজোঁড়,মুক্তাহার, গোহালা নদীতে  ফুটেছে শরতের শোভন শুভ্র কাঁশ ফুল। বেপথু বাতাসে দুলছে শুভ্রত আর আকাশ আমাদের প্রাণ ও প্রকৃতির শোভন কাঁশ ফুল কাব্যে স্থান পেয়েছে হাজার ও প্রকৃতি প্রেমী মানুষের কাছে। 

কাঁশ ফুল শোভন শুভ্র ফুল। ষড় ঋতুর বাংলাদেশে পহেলা ভাদ্র থেকে শরতের সূচনা। ভাদ্রের তালপাকা গরম, বৃষ্টি যখন তখন, রাস্তায় কাদা জল। এরপরও শরতের অপরুপ সৌন্দর্য উপেক্ষা করে সে কোন জনা ষড়ঋতুর দেশে বছর ঘুরে শরত এসেছে ফিরে নিয়ে নতুন বাসনা বদলাচ্ছে প্রকৃতি, নীল আকাশে চলছে সাদা মেঘের আনাগুনা। এমন প্রকৃতির দৃশ্য ভেঁসে উঠেছে উল্লাপাড়া উপজেলার করতোয়া, ফুলজোড়,মুক্তাহার, গোহালা নদীর চরাঞ্চল গুলোতে। যেন ঢেকে গেছে কাঁশ ফুলের ছায়ায়। নীল আকাশে সাদা মেঘ আর নদীর কূলে কাশবন মৃদুবায়ু দোলে শরতকে করছে অভিবাদন।

প্রিয় শরতের রং রূপে প্রতিদিন দূর দূরান্ত থেকে আসা দর্শনার্থীরা নিজেকেই খুঁজছে শত অভিধায় যেমন খুঁজেছেন কবি ও শিল্পীগন শত গান কবিতায় শরতকে স্বাগত জানিয়ে রবীন্দ্রনাথ রচনা করেছেন কথামালা আমরা বেঁধেছি কাশের গুচ্ছ, গেঁথেছি শেফালীমালা নবীন ধানের মঞ্জরি দিয়ে সাজিয়ে এনেছি ডালা। এসো গো শারদলক্ষ্মী, তোমার শুভ্র মেঘের রথে, নির্মল নীলপথে বকশালীকেরা গিয়েছে যে পথে।

শরতের সাথে মিলে যায় কবিগুরুর সব বর্ণনা এখন কাশফুল শেফালীমালা নবীন ধানের মঞ্জরি হয় দৃশ্যমান উল্লাপাড়ার নদীর কূল হতে প্রান্তরে মাঠে ময়দানে সবখানে গ্রামে তো বটেই। আকাশেও সুন্দর নীল মেঘ গুচ্ছ ভাসে মৃদুমন্দ হাওয়ায় গাছে ফুটছে সুগন্ধী শিউলি যা দেখে প্রেমের কবি নজরুল হয়েছিলেন মুগ্ধ ।

উল্লাপাড়া প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক জয়নাল আবেদীন জয়  নদীর কূলে কাঁশফুল দেখতে এসে কবির ভাষায় বলেন, শরত দেখতে গিয়ে শিউলি আর শিউলি দেখতে গিয়ে শরত দেখেছেন কবি। মুগ্ধ হয়ে লিখেছেন এসো শারদ প্রাতের পথিক এসো শিউলি-বিছানো পথে। এসো ধুইয়া চরণ শিশিরে এসো অরুণ-কিরণ-রথে। শুধু কি তাই, বলেছেন তিনি শিউলিতলায় ভোর বেলায় কুসুম কুড়ায় পল্লী-বালা। শেফালি পুলকে ঝ’রে পড়ে মুখে খোঁপাতে চিবুকে আবেশ-উতলা।

প্রকৃতি প্রেমী শাহিন রেজা বলেন, এখানে আকাশেও শরতের রং রূপ কত বদলায় মাথা তুলে উপরের দিকে তাকালে চোখ মুগ্ধ হয়ে মন ভরে যায়। গ্রামের সবুজ বন চিরহরিত বৃক্ষের ফাঁক দিয়ে সুন্দর আকাশ শহড়ের ভিড়েও চোখে পরে নীল আকাশ সাদা মেঘের পাল । কবিগুরুর ভাষায় আজি ধানের ক্ষেতে রৌদ্রছায়ায় লুকোচুরি খেলা রে ভাই, লুকোচুরি খেলা নীল আকাশে কে ভাসালে সাদা মেঘের ভেলা রে ভাই লুকোচুরি খেলা।

শরতে শুধু প্রকৃতি বদলায় না, মানুষের মনও বদলায় আর মনের পরিবর্তনের কথা জানালেন, আরেক প্রেমী তিনিও করি কন্ঠে বললেন,শরতে আজ কোন অতিথি এল প্রাণের দ্বারে। আনন্দগান গা রে হৃদয়, আনন্দগান গা রে। আনন্দের উপলক্ষ হয়ে আসে শরত মনকে দেয় ভরিয়ে । তবে কিছু লুকোনো বেদনাও হৃদয় খুঁড়ে তুলে আনে শরত তা না হলে নজরুল কেন লিখবেন শিউলি ফুলের মালা দোলে শারদ-রাতের বুকে ঐ এমন রাতে একলা জাগি সাথে জাগার সাথি কই।
 


২৪-০৯-২০১৮ ০২:৫৪ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 329 বার দেখা হয়েছে।

পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ

চৌহালী নিউজঃ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

নির্বাচিত খবরসমুহ
উল্লাপাড়া : আরো খরবসমুহ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ প্রকাশিত
ফেসবুকে চৌহালী নিউজঃ
চৌহালী নিউজঃ ফোকাস
বিজ্ঞাপন

স্পন্সরড অ্যাড

ভিজিটর সংখ্যা
100
১৮ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১২:৪২ পূর্বাহ্ন