চোখের জলে ভাসছে কাদাই গ্রামের ৮ পরিবার||চৌহালী নিউজঃ
চৌহালী নিউজঃ ওয়েবসাইটে স্বাগতম | যোগাযোগ : ০১৭৭৯-১১৭৭৪৪
১৭ অক্টোবর, ২০১৮ ১২:১৮ পূর্বাহ্ন       রেজিষ্টার করুন | লগইন    

সিরাজগঞ্জ: দূর্ঘটনা

চোখের জলে ভাসছে কাদাই গ্রামের ৮ পরিবার
অনলাইন নিউজ এডিটর ০১-০৮-২০১৮ ১২:০৩ পূর্বাহ্ন প্রকাশিতঃ


চোখের জলে ভাসছে কাদাই গ্রামের ৮ পরিবার

সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার ৯নং কালিয়া হরিপুর ইউনিয়নের কাদাই গ্রামের বসিন্দা নিহত ছানোয়ারের মা মাজেদা খাতুন বারবার ডুকরে ডুকরে কেঁদে উঠছেন। আর বলছেন, 'আমার ছেলে কই, তোমরা আমার ছেলেকে এনে দাও।'

মাজেদা খাতুনের পাশেই বসে চোখের জলে ভাসছেন নিহত ছাত্তারের ছেলে আব্দুল বাছেদ ও তার স্ত্রী ও সন্তনরা। তাদের সামনে যেতেই কেঁদে উঠে বললেন, 'আল্লাহ আমাদের পরিবারে একি করলে। আমরা এন কি নিয়ে থাকব। একই পরিবারে তিনজনের লাশ।'

এমন আহাজারি শুধু মাজেদা বা ছাত্তারের পরিবারের সদস্যদের নয়। তাদের দু’জনের মতো কাদাই গ্রামের আরও ৫টি পরিবারে একই অবস্থা। পাশাপাশি পুরো গ্রামেই চলছে কান্না ও শোকের মাতম। হাজারো মানুষ এক নজর দেখতে ছুটে চলছে ওই নিহত আট পরিবারে বাড়ীতে। মঙ্গলবার বিকালে এমনই দৃশ্য চোখে পড়ে সদর  উপজেলার কাদাই গ্রামে।

বাবার লাশের পাশে বসে থাকা বড় ছেলে বাছেদ বলেন, 'বাবা ও দুই ভাইকে এভাবে হারাতে হবে কখনও ভাবিনি। এই মর্মান্তিক বেদনা আমার পরিবারের লোকজন কিভাবে সইবে কান্না জড়িত কন্ঠে বলতেই সে মাটিতে লুটিয়ে পড়ল।'

স্থানীয় ইউপি মেম্বার হযরত আলী বলেন, 'একটি টিনের ঘর বৃষ্টির পানিতে ডুবে যায়। মঙ্গলবার দুপুরের দিকে ১০-১২ জন দোকানটি উঠিয়ে অন্য স্থানে সরিয়ে নেয়ার সময় বিদ্যুতের তরের সাথে ছোঁয়া লাগলে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে সবাই পানিতে পড়ে যায়। পরে তারটি কেটে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে ৮জনকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।' 

নিহতরা হলেন, কাদাই গ্রামের মেঘা শেখের ছেলে আব্দুস সাত্তার (৫০), তার ভাতিজা আব্দুল হামিদের ছেলে ছানোয়ার হোসেন (২৫), আবু তাহেরের ছেলে আব্দুল্লাহ (১৩), কাসেমের ছেলে মমিন (৩০), আব্দুল আলীমের ছেলে সজীব (১৩), আমিনুলের ছেলে রাজু (১৪), আবুল হোসেনের ছেলে হাবিব (২৪) ও মৃত হাবিবুর রহমানের ছেলে রফিকুল (৩০)।

জেলা প্রশাসক কামরুন নাহার সিদ্দিকার পক্ষ থেকে নিহত প্রত্যেকের পরিবারকে ২৫ হাজার করে টাকা দেয়া হয়েছে।  বিকালে অতিরিক্ত জেলাপ্রশাসক নিহতদের বাড়ি গিয়ে সমবেদনা জানান।

এদিকে এ ঘটনায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. মনরিুজ্জামানকে প্রধান করে পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন, বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী এ কে এম মহিউদ্দিন, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সরকার মোহাম্মদ রায়হান, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ দাউদ ও স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদে  চেয়ারম্যানের পক্ষে ইউপি সদস্য জাকির হোসনে। কমিটিকে আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

সিরাজগঞ্জ অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. মনিরুজ্জামান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।


০১-০৮-২০১৮ ১২:০৩ পূর্বাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 288 বার দেখা হয়েছে।

পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ

চৌহালী নিউজঃ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

নির্বাচিত খবরসমুহ
সিরাজগঞ্জ : আরো খরবসমুহ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ প্রকাশিত
ফেসবুকে চৌহালী নিউজঃ
চৌহালী নিউজঃ ফোকাস
বিজ্ঞাপন

স্পন্সরড অ্যাড

ভিজিটর সংখ্যা
100
১৭ অক্টোবর, ২০১৮ ১২:১৮ পূর্বাহ্ন