তাড়াশে পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের ডিজিএম’র বিরুদ্ধে গ্রাহক হয়রানীর অভিযোগ||চৌহালী নিউজঃ
চৌহালী নিউজঃ ওয়েবসাইটে স্বাগতম | যোগাযোগ : ০১৭৭৯-১১৭৭৪৪
১৭ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৬:০৭ পূর্বাহ্ন       রেজিষ্টার করুন | লগইন    

তাড়াশে পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের ডিজিএম’র বিরুদ্ধে গ্রাহক হয়রানীর অভিযোগ
অনলাইন নিউজ এডিটর ০৭-০৭-২০১৮ ০২:০১ অপরাহ্ন প্রকাশিতঃ


ফাইল ছবি

তাড়াশে পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের ডিজিএম’র বিরুদ্ধে গ্রাহক হয়রানীর অভিযোগ

তাড়াশ প্রতিনিধিঃ সিরাজগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর তাড়াশ জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) কামরুজ্জামানের বিরুদ্ধে ব্যাপক গ্রাহক হয়রানী ও ঘুষ দাবীর অভিযোগ উঠেছে। তাছাড়া উপজেলার বিশিষ্টজনদের অভিযোগ সরকার তাড়াশ উপজেলাকে শতভাগ বিদ্যুতায়নের আওতায় আনলেও ডিজিএম এর কারনে গ্রাহকেরা সে সুবিধা পাচ্ছেন না। সেবা নিতে আসা অনেক গ্রাহককে গালমন্দ করে অফিস কক্ষ থেকে বের করে দিয়েছেন এমন বিস্তর অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা যায়, প্রায় ৪৮ হাজার গ্রাহকের তাড়াশ জোনাল অফিসের ডিজিএম মো. কামরুজ্জামান দুই বছরের অধিক সময় ধরে এ উপজেলায় কর্মরত আছেন। তিনি নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ নিতে গ্রাহকদের নিকট অনৈতিক সুবিধা দাবী করছেন এবং তার দাবীকৃত উৎকোচ না দিলে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের সুপারিশ আনতে হবে, পরে যোগাযোগ করবেন, পরে দেখা যাবে, আজ হবে না-এমন নানান অজুহাত দেখিয়ে মাসের পর মাস হয়রানী করছেন বলে গ্রাহকদের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

উপজেলার বারুহাস ইউনিয়নের বারুহাস গ্রামের গ্রাহক আব্দুল মান্নান জানান, তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ৮টি বানিজ্যিক মিটার গত তিন মাস পুর্বে কাস্টোমার মিটার অর্ডার (সিএমও) হলেও তিনি এখনো সংযোগ পায়নি। কারন হিসাবে বলেন, ডিজিএম কামরুজ্জামান তাকে সংযোগ সংক্রান্ত ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের সুপারিশ জমা দিতে বলেন। পরে চেয়ারম্যানের সুপারিশ জমা দিয়েও সংযোগ মেলেনি। এ বিষয়ে কথা বলতে অফিসে গেলে ডিজিএম আমাকে গোপনে ডেকে এক লক্ষ টাকা ঘুষ দাবী করেন। অন্যথায় কখনো বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হবে না বলে সাফ জানিয়ে দেন।

হয়রানীর শিকার গ্রাহক আব্দুল মান্নান আরো বলেন, ইতিপুর্বেও ডিজিএম বারুহাস এলাকার পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সাবেক পরিচালক রফিক মাস্টারের মাধ্যমে আমার কাছে ১ লক্ষ টাকা ঘুষ দাবী করেছিলেন।

নতুন সংযোগের কাগজপত্র হাতে নিয়ে আসা তাড়াশ জোনাল অফিসে আসা উপজেলার সান্দুরিয়া গ্রামের আক্কাস আলী, সরাবাড়ি গ্রামে আব্দুল বারিক, কালুপাড়ার রতন মিয়া, আড়ংগাইল গ্রামের মোর্শেদ আলীসহ অনেক গ্রাহক ডিজিএম’র অনৈতিক দাবী পুরুন করতে না পেরে হয়রানী শিকার হচ্ছেন বলে অভিযোগ করেন।

এ ব্যাপারে তাড়াশ পল্লী বিদ্যুৎ জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) কামরুজ্জামানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ক্ষেত্র বিশেষে গ্রাহকদের চেয়ারম্যানদের সুপারিশ আনার কথা বলার বিষয়টি স্বীকার করলেও ঘুষ দাবীসহ অন্যান্য অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।


০৭-০৭-২০১৮ ০২:০১ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে এবং 519 বার দেখা হয়েছে।

পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ

চৌহালী নিউজঃ সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

নির্বাচিত খবরসমুহ
তাড়াশ : আরো খরবসমুহ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ প্রকাশিত
ফেসবুকে চৌহালী নিউজঃ
চৌহালী নিউজঃ ফোকাস
বিজ্ঞাপন

স্পন্সরড অ্যাড

ভিজিটর সংখ্যা
100
১৭ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৬:০৭ পূর্বাহ্ন